Jjjjj
Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ!


আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করব কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ নিয়ে। বিভিন্ন মোবাইল কোম্পানির অনেক ধরনের ফোন রয়েছে বাংলাদেশে। প্রযুক্তির উন্নতির সাথে সাথে ফোনের দাম কমতেছে। 

বিভিন্ন কোম্পানি বাংলাদেশে কম বাজেটের নিত্যনতুন ফোন নিয়ে আসছে। অল্প বাজেটের ফোনগুলো থেকে অনেক স্পেসিফিকেশন আশা করাটা বেমানান। তবুও ‌ কম বাজেটের মোবাইলগুলোতে বর্তমানে অনেক ধরনের নতুুুন স্পেসিফিকেশন যুক্ত হচ্ছে। 


কিছুদিন আগেও কম বাজেটের ফোনগুলোতে এরকম স্পেসিফিকেশন যুক্ত ছিল না। বর্তমানে বাংলাদেশে দশ ও পনেরো হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন পাওয়া যায়।

বর্তমানে বাংলাদেশে অল্প দামে ভালো ক্যামেরা,ব্যাটারি, প্রসেসর সহ ফোন পাওয়া যাচ্ছে।

কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ।

কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ।

বাংলাদেশে কম দামে ভালো ফোন নিয়ে আসা কোম্পানিগুলোর মধ্যে আইটেল, সিম্ফোনি, ইনফিনিক্স, টেকনো, রিয়েলমি ইত্যাদি অন্যতম।

এসব কোম্পানি বাংলাদেশে নিত্যনতুন ফিচারস(features) এর সাথে নতুন নতুন কম বাজেটের ফোন লঞ্চ করতেছে। এরকম কিছু মোবাইল কোম্পানির কম বাজেটের ‌ফোনগুলো নিয়ে আজকে আলোচনা করা হবে।

দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন 2021

1.Itel A48

Itel A48

কম দামে ভালো ফোন গুলোর মধ্যে itel A48 একটি অন্যতম ফোন। অল্প দামের এই ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 720*1520 রেজুলেশনের এইচডি প্লাস 6.1 ইঞ্চি ডিসপ্লে। 

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 1.4 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর এবং সাথে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। চিপসেট হিসেবে রয়েছে ইউনিসক(unisoc).

রেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 2 জিবি রেম এবং ইন্টার্নাল ষ্টোরেজ(Rom) হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 32 জিবি ইন্টার্নাল স্টোরেজ(Rom). স্টোরেজ মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত বাড়া‌নো যাবে।

মোবাইলের পিছনে রয়েছে 5 মেগাপিক্সেলের এবং 0.3 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফোনটির সামনে রয়েছে  5  মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ব্যাটারি হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 3000mah লিথিয়াম ব্যাটারি। যার মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে সর্বোচ্চ একদিন। চার্জিং সুবিধার ক্ষেত্রে মোবাইলটিতে নেই কোন ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক। এই ফোনটি 0.2 সেকেন্ডে ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক খুলতে সক্ষম। মোবাইলটির মূল্য 6690 টাকা মাত্র।

Itel A48 এর স্পেসিফিকেশন:

  • 6.1 ইঞ্চি ডিসপ্লে।
  • 3000 mah ব্যাটারি।
  • 2 জিবি রেম, 32 জিবি রম।
  • রেয়ার 5+0.3 এবং ফ্রন্ট 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 ।
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ফেসলক। 

2.Itel vision 1 pro

Itel Vision 1 pro

মোবাইলটিতে রয়েছে কোয়াড কোর 1.4 গিগাহার্জ প্রসেসর। চিপসেট হিসেবে রয়েছে ইউনিসক(Unisoc) 28nm.

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড 10 ভার্সনের কারণে এতে পাবেন নতুন নতুন অনেক ফিচারস।

মোবাইলটিতে রয়েছে পিছনে ত্রিপল ক্যামেরা। যার মধ্যে তিনটি ক্যামেরাতেই 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। ফ্রন্ট বা সামনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

Back Camera features:

  • অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ, ফোর এক্স জুম

32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর সাথে রয়েছে 2 জিবি রেম। 2 জিবি রেম থাকার কারণে ফোনটা স্মুথলি ব্যবহার করা যাবে। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

এইচডি প্লাস এর সাথে 720*1600 রেজুলেশনের 6.5 ইঞ্চি ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। ডিসপ্লে রেজুলেশন বেশি হওয়ার কারণে ফোনটিতে ডিসপ্লেতে ক্লিয়ারেন্স বেশি পাবেন।

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 4000 এমএইচ ব্যাটারি। কিন্তু মোবাইলটিতে চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য নেই কোনো ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। 4000 এমএইচ ব্যাটারিতে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাবেন এক দিন পর্যন্ত।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক ব্যবহার করতে পারবেন ফোনটি সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য। মোবাইলটির মূল্য 7690 টাকা মাত্র।

Itel Vision 1 pro স্পেসিফিকেশন: 

  • অ্যান্ড্রয়েড 10
  • রেয়ার 8 মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা, 8 মেগাপিক্সেল সিঙ্গেল ক্যামেরা।
  • 2gb ram,32gb ram.
  • 4000 mah ব্যাটারি।

3.Techno spark 6 go

Techno spark 6 go

দশ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন গুলোর মধ্যে techno spark 6 go অন্যতম।অল্প দামের এই ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 720*1600 রেজুলেশনের 6.52 ইঞ্চি ডিসপ্লে। 

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 1.8 গিগাহার্জ কোয়াড কোর চিপসেট এবং সাথে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম । প্রসেসর হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে হেলিও A20.

রেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 2 জিবি রেম এবং ইন্টার্নাল ষ্টোরেজ(Rom) হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 32 জিবি ইন্টার্নাল স্টোরেজ(Rom). স্টোরেজ মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

মোবাইলের পিছনে রয়েছে 13 মেগাপিক্সেল+ এল লেন্স ক্যামেরা। ফোনটির সামনে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

Back Camera features:
  • বিউটি, এলইডি ফ্ল্যাশ, ফোর এক্স জুম, এএস আর, এইচডিআর ইত্যাদি।
ব্যাটারি হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 5000mah ব্যাটারি। যার মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে এক থেকে দুই দিন। চার্জিং সুবিধার ক্ষেত্রে মোবাইলটিতে নেই কোন ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক। 

সেন্সর হিসেবে মোবাইলটিতে রয়েছে জিসেন্সর ,প্রক্সিমেটি সেন্সর, ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ইত্যাদি। এই মোবাইলটির মূল্য 8690 টাকা।

Techno spark 6 go এর স্পেসিফিকেশন:

  • অ্যান্ড্রয়েড 10।
  •  13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, 8 মেগাপিক্সেল সিঙ্গেল ক্যামেরা।
  • 2gb ram,32gb rom.
  • 4000 mah ব্যাটারি।
  • হেলিও a20 প্রসেসর।

4.Itel vision 1 Plus

আইটেল ভিশন 1 প্লাস

অল্প দামের ফোন গুলোর মধ্যে itel Vision 1 Plus একটি ভালো ফোন। এই ফোনটির দুটি ভেরিয়েন্ট বাংলাদেশে পাওয়া যায়। একটি হচ্ছে 2/32 এবং অন্যটি 3/32 ভেরিয়েন্ট।

ফোনটিতে রয়েছে কোয়াড কোর 1.6 গিগাহার্জ প্রসেসর। চিপসেট হিসেবে রয়েছে ইউনিসক(Unisoc) 28nm.

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 9 অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড 9 ভার্সনের কারণে এতে পাওয়া যাবে নাহ নতুন নতুন অনেক ফিচারস।

মোবাইলটিতে পিছনে রয়েছে ডুয়েল ক্যামেরা। যার মধ্যে দুটি ক্যামেরাতে 13 মেগাপিক্সেল  এবং 0.3 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। ফ্রন্ট বা সামনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

Back Camera features:

  • অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ, ফোর এক্স জুম, এআর ইমোজি, লো লাইট ইত্যাদি।
ফোনটির রয়েছে দুটি ভেরিয়েন্ট। একটি 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর সাথে রয়েছে 2 জিবি রেম। অন্যটি ‌‌32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর সাথে রয়েছে 3 জিবি রেম। এসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

এইচডি প্লাস এর সাথে 720*1600 রেজুলেশনের 6.5 ইঞ্চি ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। ডিসপ্লে রেজুলেশন বেশি হওয়ার কারণে ফোনটিতে ডিসপ্লেতে ক্লিয়ারেন্স বেশি পাবেন।

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 5000 এমএইচ ব্যাটারি। 
মোবাইলটির 3 জিবি ভেরিয়েন্টে পাওয়া যাবে 10 ওয়াট ফাষ্ট চার্জিং সুবিধা। কিন্তু 2 জিবি ভেরিয়েন্টে থাকছে না কোন ফাষ্ট চার্জিং সুবিধা। 5000 এমএইচ ব্যাটারিতে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাবেন এক থেকে দুই দিন পর্যন্ত।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক ব্যবহার করতে পারবেন ফোনটির সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য। 

2/32 জিবি ভেরিয়েন্টর মোবাইলটির মূল্য 7990 এবং 3/32 জিবি ভেরিয়েন্টের মোবাইলটির মূল্য 9490।

5.Symphony z16

Symphony z16

Symphony z16 ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেমের সাথে 1.8 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর।

মোবাইলটির পিছনে ব্যবহৃত হয়েছে ত্রিপল ক্যামেরা। পিছনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 13 মেগাপিক্সেল এবং সাথে রয়েছে 2 ও 5 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

Back Camera features:
  • এএল, আল্ট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল, প্রোট্রাইড, ওয়াটারমার্ক, ইমোজি, নাইট মোড, এন্টি ফ্লিকার, ফেস বিউটি, ডিসপ্লে প্লাস, গুগোল লেন্স, টাইম ল্যাপসি, স্লো-মোশন, প্রফেশনাল, টাচ শর্ট ইত্যাদি।
6.5 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লের সাথে রয়েছে 720*1600 রেজুলেশনের ডিসপ্লে।

মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 4000mah এর লি-পো ব্যাটারি। 4000mah ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার জন্য নেই কোনো ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

মোবাইলটি রয়েছে শুধু একটি ভেরিয়েন্টে। এই ভেরিয়েন্টি হচ্ছে 2 জিবি রেম ও 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

সিকিউরিটি সেন্সর হিসেবে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট। সাথে সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য আরো রয়েছে ফেসলক সুবিধা। এই মোবাইলটির মূল্য 8290 টাকা।

Symphony z16 স্পেসিফিকেশন:
  • 2 জিবি রেম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম।
  • 4000 এমএইচ ব্যাটারি।
  • পিছনে 13, 2 ও 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সামনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • 6.5 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।

পনেরো হাজার টাকার মধ্যে সেরা ফোন 2021

1.Infinix hot 10


পনেরো হাজার টাকার মধ্যে Infinix hot 10 একটি অন্যতম ভালো ফোন। 6.78 ইঞ্চি ডিসপ্লের সাথে রয়েছে 720*1640 রেজুলেশনের আইপিএস ডিসপ্লে।

ফোনটির পিছনে রয়েছে চারটি ক্যামেরা। এই চারটি ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 16 মেগাপিক্সেল,2 মেগাপিক্সেল, 2 মেগাপিক্সেল এবং সাথে রয়েছে এএল ল্যান্স ক্যামেরা। সামনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড 10 ভার্সনের কারণে এতে পাওয়া যাবে নতুন নতুন অনেক ফিচারস।

মোবাইলটি রয়েছে শুধু একটি ভেরিয়েন্টে। এই ভেরিয়েন্টি হচ্ছে 3 জিবি রেম ও 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে 512 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

ব্যাটারি হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 5200mah ব্যাটারি। যার মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে এক থেকে দুই দিন। চার্জিং সুবিধার ক্ষেত্রে মোবাইলটিতে রয়েছে 10 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

সিকিউরিটি সেন্সর হিসেবে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট। সাথে সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য আরো রয়েছে ফেসলক সুবিধা। মোবাইলটির মুল্য 12990 টাকা।

Infinix hot 10 স্পেসিফিকেশন:
  • 3 জিবি রেম 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম।
  • 5200 এমএইচ ব্যাটারি।
  • পিছনে 16, 2, 2 মেগা পিক্সেল ও এএললান্স ক্যামেরা। সামনে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • 6.78 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।

2.Realme c15

Realme c15

এই ফোনটির দুটি ভেরিয়েন্ট বাংলাদেশে পাওয়া যায়। একটি হচ্ছে 4/64 এবং অন্যটি 4/128 ভেরিয়েন্ট।
মোবাইলটিতে রয়েছে কোয়াড কোর 1.8 গিগাহার্জ চিপসেট। প্রসেসর হিসেবে রয়েছে স্নাপড্রাগণ 460।

রিয়েলমি ইউ আই এর সাথে অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড 10 ভার্সনের কারণে এতে পাবেন নতুন নতুন অনেক ফিচারস।

ফোনটির পিছনে রয়েছে চারটি ক্যামেরা। এই চারটি ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 13 মেগাপিক্সেল,8 মেগাপিক্সেল, 2 মেগাপিক্সেল এবং সাথে রয়েছে 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। 

Back Camera feature:
  • বিউটি, ফিল্টার, এইচডিআর, প্যানারোমা, প্রোট্রাইড, রিকোকনিশন, এক্সপার্ট, নাইটস্কেপ, আল্ট্রা ওয়াইড, ক্রমে বুষ্ট ইত্যাদি অনেক ফিচার রয়েছে।
ছবি তোলার জন্য মোবাইলটি সামনে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। যা দিনের আলোতে অনেক ভালো ছবি তুলতে সক্ষম।

Selfie camera feature:
  • বিউটি, প্রোট্রাইড, প্যানারোমা, নাইটস্কেপ ইত্যাদি ফিচার রয়েছে।
64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর সাথে রয়েছে 4 জিবি রেম। 4 জিবি রেম থাকার কারণে ফোনটা স্মুথলি ব্যবহার করা যাবে। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে 128 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

এইচডি প্লাস এর সাথে 720*1600 রেজুলেশনের 6.5 ইঞ্চি এইচডি প্লাস মিনি ড্রপ ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। ডিসপ্লে রেজুলেশন বেশি হওয়ার কারণে ফোনটিতে ডিসপ্লেতে ক্লিয়ারেন্স বেশি পাবেন।

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 6000 এমএইচ ব্যাটারি।মোবাইলটিতে চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য রয়েছে 18 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। 6000 এমএইচ ব্যাটারিতে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাবেন দুই দিন থেকে তিন দিন পর্যন্ত। 

ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক ব্যবহার করতে পারবেন ফোনটি সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য। 4/64 জিবি ভেরিয়েন্টের মোবাইলটির মূল্য 12990 এবং 4/128 জিবি ভেরিয়েন্টের মোবাইলটির মূল্য 14490।

Realme c15 স্পেসিফিকেশন: 
  • অ্যান্ড্রয়েড 10
  • রেয়ার মেইন ক্যামেরা 13 মেগাপিক্সেল এর সাথে মোট চারটি ক্যামেরা, ফ্রন্ট 8 মেগাপিক্সেল সিঙ্গেল ক্যামেরা।
  • 4gb ram,64gb rom.
  • 6000 mah ব্যাটারি।
  • 18 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং।

3.Techno spark 6

Techno spark 6

অল্প দামের এই ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 720*1640 রেজুলেশনের এইচডি প্লাস 6.6 ইঞ্চি ডিসপ্লে। 

মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 2.0 গিগাহার্জ কোয়াড কোর চিপসেট এবং সাথে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। প্রসেসর হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও G70 .

রেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 4 জিবি রেম এবং ইন্টার্নাল ষ্টোরেজ(Rom) হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 128 জিবি ইন্টার্নাল স্টোরেজ(Rom). স্টোরেজ মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে 256 জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

মোবাইলের পিছনে রয়েছে 16+2+2 মেগাপিক্সেল এবং QVGA ক্যামেরা। ফোনটির সামনে রয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

পিছনের ক্যামেরা দিয়ে 1440 পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

ব্যাটারি হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 5000mah ব্যাটারি। যার মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে এক থেকে দুই দিন । চার্জিং সুবিধার ক্ষেত্রে মোবাইলটিতে রয়েছে 18 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেসলক। মোবাইলটির মূল্য 13990 টাকা মাত্র।

Techno spark 6 এর স্পেসিফিকেশন:
  • 6.6 ইঞ্চি ডিসপ্লে।
  • 5000 mah ব্যাটারি।
  • 4 জিবি রেম, 128 জিবি রম।
  • রেয়ার 16+2+2+Qvga এবং ফ্রন্ট 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 ।
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ফেসলক। 

4.Oppo A50

Oppo A15

Oppo A15 ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেমের সাথে 2.3 গিগাহার্জ কোয়াড কোর চিপসেট। প্রসেসর হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও পি35।

মোবাইলটির পিছনে ব্যবহৃত হয়েছে ত্রিপল ক্যামেরা। পিছনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 13 মেগাপিক্সেল এবং সাথে রয়েছে 2 ও 2 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

Back Camera features:‌
  • প্যানারোমা,এএল, প্রোট্রাইড, ওয়াটারমার্ক, নাইট মোড, ফেস বিউটি, ডিসপ্লে প্লাস, টাইম ল্যাপসি, স্লো-মোশন, প্রফেশনাল, ইত্যাদি।

6.5 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লের সাথে রয়েছে 720*1600 রেজুলেশনের ডিসপ্লে।

মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 4230mah এর লি-পো ব্যাটারি। এই ব্যাটারীতে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে আজ থেক এক দিন পর্যন্ত।

মোবাইলটি রয়েছে শুধু একটি ভেরিয়েন্টে। এই ভেরিয়েন্টি হচ্ছে 3 জিবি রেম ও 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে 256 জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

সিকিউরিটি সেন্সর হিসেবে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট। সাথে সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য আরো রয়েছে ফেসলক সুবিধা। এই মোবাইলটির মূল্য 12990 টাকা।

Oppo A15 স্পেসিফিকেশন: 
  • 3 জিবি রেম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম।
  • 4230 এমএইচ ব্যাটারি।
  • পিছনে 13, 2 ও 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সামনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • 6.5 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।

‌‌5.Xiomi poco c3 


পনেরো হাজার টাকার মধ্যে Xiaomi poco c3 অন্যতম একটি ভালো ফোন। 6.43 ইঞ্চি ডিসপ্লের সাথে রয়েছে 720*1600 রেজুলেশনের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।

ফোনটির পিছনে রয়েছে তিনটি ক্যামেরা। পিছনে রয়েছে 13+2+2 মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা। সামনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড 10 ভার্সনের কারণে এতে পাওয়া যাবে নতুন নতুন অনেক ফিচারস।

মোবাইলের দুটি ভেরিয়েন্ট বাংলাদেশ পাওয়া যায়। একটি ভেরিয়েন্টি হচ্ছে 3 জিবি রেম ও 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। এবং আরেকটি ভেরিয়েন্ট হচ্ছে 4 জিবি রেম ও 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে স্টোরেজ বাড়াতে পারবেন।

ব্যাটারি হিসেবে মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে 5000mah ব্যাটারি। যার মাধ্যমে সাধারণ ব্যবহারে ব্যাকআপ পাওয়া যাবে এক থেকে দুই দিন। চার্জিং সুবিধার ক্ষেত্রে মোবাইলটিতে রয়েছে 10 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

সিকিউরিটি সেন্সর হিসেবে রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট। সাথে সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য আরো রয়েছে ফেসলক সুবিধা। 3/32 জিবি ভেরিয়েন্টের মোবাইলটির মূল্য 11999 টাকা এবং 4/64 জিবি ভেরিয়েন্টের মোবাইলটির মূল্য 12999 টাকা।

Xiaomi poco c3 স্পেসিফিকেশন:
  • অ্যান্ড্রয়েড 10 অপারেটিং সিস্টেম।
  • 5000 এমএইচ ব্যাটারি।
  • পিছনে 13, 2 ও 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সামনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
  • 6.43 ইঞ্চি এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 10 ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।

আমাদের শেষ কথা

আশাকরি উপরে আলোচনাকৃত কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ আর্টিকেলটি পড়ে বাংলাদেশের কম দামে ভালো ফোন গুলো সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন। আমরা চেষ্টা করেছি উপরে উল্লেখিত ফোন গুলো সম্পর্কে আপনাদেরকে বিস্তারিত ধারণা দেওয়ার।

ব্রিঃদ্রঃ উপরে উল্লেখিত ফোন গুলোর দাম যেকোনো সময় কোম্পানি বা অন্য কোন ভাবে পরিবর্তিত হতে পারে।

Sharif ahmed
Sharif ahmed ব্লগিং করা আমার স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলায় টেকনোলজি নিয়ে ব্লগিং শুরু করেছি।

2 comments for "কম দামে ভালো ফোন 2021 বাংলাদেশ!"

  1. https://teklool.blogspot.com/2021/03/xioami-redmi-mi-phone-all-secret-code-bangla.html

    ReplyDelete
  2. https://teklool.blogspot.com/2021/03/samsung-phone-secret-code-bangla.html

    ReplyDelete

দয়াকরে কমেন্ট স্প্যামিং থেকে বিরত থাকুন !