কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়?

তথ্যপ্রযুক্তির এই দিনে অন্যান্য জিনিসের সাথে মোবাইল আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে গেছে। মোবাইলের অতিরিক্ত ব্যবহারের কারণে অনেকেই বর্তমানে মোবাইল আসক্ত হয়ে যাচ্ছে। প্রত্যেকটি বস্তুর একটি খারাপ এবং ভালো দিক রয়েছে। 

পড়াশোনা বা গুরুত্বপূর্ণ কাজে মোবাইলকে ব্যবহার না করে। অন্য কোন কাজে মোবাইলের অতিরিক্ত ব্যবহারকে মোবাইল আসক্তি বলে। 

মোবাইলের অতিরিক্ত আসক্তি একটি রোগ। এই রোগের নাম হচ্ছে Nomophobia. আজকে এই টিউটোরিয়াল এর মাধ্যমে আমরা জানতে পারব কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়?
(How to Solve mobile addiction problem?)

কিভাবে বুঝবো আমি মোবাইলের প্রতি আসক্ত?

আপনি মোবাইল আসক্ত কিনা এটা আপনি আপনার আচরণের মাধ্যমে বুঝতে পারবেন। নিচের বিষয়গুলোর সাথে মিলিয়ে দেখুন আপনার সাথে মিল আছে কিনা।যদি মিল থাকে, তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইল আসক্ত। 

  • যদি আপনি পূর্বে বিকেলবেলা খেলাধুলা করতেন কিন্তু বর্তমানে আপনি যদি বিকেলবেলা খেলাধুলা না করে মোবাইল নিয়ে বসে থাকেন। তাহলে বুঝবেন যে আপনি মোবাইল আসক্ত।
  • মোবাইলে চার্জ না থাকলে বা এমবি না থাকলে যদি আপনার উদ্বিগ্ন লাগে। তাহলে বুঝবেন যে আপনি মোবাইল আসক্ত।
  • খাবার খাওয়ার সময়, এমন কি গুরুত্বপূর্ণ কোনো কাজে গিয়েও যদি আপনি মোবাইল ছাড়া থাকতে না পারেন। তাহলে বুঝবেন যে, আপনি মোবাইলের প্রতি খুব আসক্ত হয়ে গেছেন।
  •  যদি পূর্বে আপনার বন্ধুরা আপনাকে ডাকলে আপনি সাথে সাথে তাদের সাথে চলে যেতেন। কিন্তু বর্তমানে মোবাইল চালাইতেছেন এমতাবস্থায় আপনার বন্ধুরা আপনাকে ডাকলে যদি আপনার বন্ধুদের ডাকটাকে আপনার কাছে খুব বিরক্ত মনে হয়। তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইল আসক্ত।
  • মোবাইল নিয়ে পড়ে থাকার কারণে যদি আপনার কাজগুলো আগের রুটিন মত না হয় তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইল আসক্ত।
  • দিনের বেশিরভাগ সময় অন্যান্য কাজকর্ম ছেরে যেমন,পড়াশোনা বা অন্য কোন কাজ ছেড়ে যদি আপনি মোবাইল নিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইলের প্রতি আসক্ত।
  • মোবাইলের নোটিফিকেশন বার এ মেসেজ আসতে দেরি হয়। কিন্তু মোবাইলটা ধরতে আপনার দেরি হয় না। যদি আপনার সাথে এরকমটা হয়ে থাকে। তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইল আসক্ত।
  • কোথাও ঘুরতে গেলে সেখানের সৌন্দর্য উপভোগ না করে। সেখানে গিয়ে যদি আপনি মোবাইল নিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে বুঝবেন আপনি মোবাইলের প্রতি খুব  বেশি   আসক্ত।
  • পূর্বে আপনি যে সময়টুকু পড়াশোনা বা বন্ধুদের সাথে আড্ডা এমনকি অন্যান্য কাজে ব্যয় করতেন। সেই সময়টুকু যদি ঐ সব কাজে ব্যয় না করে। বর্তমানে শুধু মোবাইলের পিছনে ব্যয় করতেছেন। তাহলে বুঝবেন যে আপনি মোবাইলের প্রতি আসক্ত হয়ে গেছেন।

উপরের বিষয়গুলো সাথে আপনি নিজের সাথে মিলিয়ে দেখুন। যদি আপনার সাথে উপরের বিষয়গুলোর অধিকাংশ মিলে যায়। তাহলে বুঝলেন আপনি মোবাইলের প্রতি আসক্ত। তাহলে এখন আপনার জানতে হবে যে কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারের কুফল।

  1. চোখে কম দেখাঃ অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারের কারনে চোখের জ্যোতি কমে যেতে পারে। ফলে চোখে কম দেখতে পারেন। অনেকক্ষণ যাবৎ মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকলে। চোখে অনেক সমস্যা হতে পারে। এমনকি চোখে ব্যথাও হতে পারে।
  2.  কানে কম শুনাঃ মোবাইলের প্রতি আসক্ত হয়ে গেলে কানে কম শোনার সমস্যাটাও সৃষ্টি হতে পারে। 
  3. জ্ঞান লোভ পাওয়াঃ অনেকক্ষণ যাবৎ মোবাইলের প্রতি আকৃষ্ট হলে এবং মোবাইলের প্রতি আসক্ত হলে জ্ঞান লোপ পাওয়ার মতো সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়?

মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য প্রথমে আপনার নিজেকে পরিবর্তন করতে হবে। আপনি মোবাইল পাওয়ার পূর্বে যে রকম আচরণ করতেন ঠিক সেরকম আচরন করুন। তাহলে আপনি আপনার মোবাইল আসক্তি থেকে কিছুটা দূরে থাকতে পারবেন। নিচের বিষয়গুলোর অনুসরণ করলে আপনি কিছুটা মোবাইল আসক্তি থেকে দূরে থাকতে পারেন।
  1. মোবাইল রেখে বন্ধুদের সাথে আগের মতো আড্ডা দিন।
  2.  পড়াশোনা বা অন্য কোন কাজ কর্মে ব্যস্ত থাকুন। সর্বোচ্চ চেষ্টা করুন মোবাইল থেকে দূরে থাকার।
  3. মোবাইল বাড়িতে রেখে দূরে কোন আত্মীয়ের বাড়িতে দু'চারদিন ঘুরে আসতে পারেন। তাহলে ওই দু চারদিন আপনি মোবাইল ছাড়া কি কাজে অতিক্রম করলেন। সেই কাজগুলো নোট করে রাখুন এবং পরবর্তীতে মোবাইল থাকা অবস্থায় সেই কাজগুলো করুন।
  4.  সময় দেখার জন্য  মোবাইল না ঘড়ি ব্যবহার করুন। কারণ একটু পরপর মোবাইল দিয়ে সময় দেখার জন্য মোবাইল ব্যবহার করলে।আবারো মোবাইল ব্যবহার করতে ইচ্ছে করবে।
  5. যে সময়টুকু মোবাইলের পিছনে ব্যয় করতেন সেই সময়টুকু চেষ্টা করুন পড়াশোনার পিছনে ব্যয় করতে তাহলে আপনার ভবিষ্যৎ এ ভালো হবে। কারণ ভবিষ্যতে আপনি মোবাইল ব্যবহার করার জন্য সময় পেলেও পড়ালেখার আর সময় পাবেন না।
  6. ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলুন। যদি আপনি মুসলমান হয়ে থাকেন। তাহলে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ুন। ইনশাল্লাহ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার কারণে আপনার মোবাইল ব্যবহার করা অনেকটা কমে যাবে।
Mobile addiction solver app


মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়ার অ্যাপ।

উপরের বিষয়গুলো মেনে চলে ও যদি আপনি মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি হতে পারছেন না। তাহলে নিচের দুটি অ্যাপস ব্যবহার করে দেখুন। আপনি মোবাইল আসক্তি থেকে অবশ্যই অবশ্যই মুক্তি পেতে পারবেন। 
ইনশাল্লাহ!

1.keep me out.

যদি আপনি বলেন আপনার মোবাইলে এমবি বা চার্জ থাকা অবস্থায় মোবাইল ছাড়া এক মুহূর্ত থাকতে পারেন না। এমনকি মোবাইল ছাড়া অন্য কোন কাজে মনোনিবেশ করতে পারেন না। তাহলে আমি আপনাকে বলবো যে এই অ্যাপসটি আপনি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

 কারণ এই অ্যাপসটির মাধ্যমে আপনি অ্যাপটির সকল সেটিং সেটআপ করার পরে।আপনি যতটুকু সময় মোবাইল ব্যবহার করতে চান না। ততটুকু সময় অ্যাপটিতে সেটআপ করে দিন। সেটাপ করার পর যতটুকু সময় অ্যাপটিতে সেট করেছেন।ততটুকু সময় পর্যন্ত  আর মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না। 

এমনকি আপনি শুনলে অবাক হবেন রিস্টার্ট বা রিবোর্ট মারলেও আপনি ওই সময়ের মধ্যে আর মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না। অ্যাপ টি ওপেন করে সবগুলো সেটিং সেটআপ করার পরে। নিচের মত একটি পেজ আসবে নিচের স্ক্রীনশটএর মত এরকম করে আপনি অ্যাপটি চালু করতে পারবেন।

Keep me out app using guide


অ্যাপটি ডাউনলোড করতে  প্লে ষ্টোরে keep me out লিখে সার্চ করুন।

2.Your hour.

Keep me out অ্যাপ এর সাথে এই অ্যাপসটির অনেকটা সাদৃশ্য রয়েছে। আপনি কোন একটি নির্দিষ্ট অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে চাইলে এই অ্যাপসটি ব্যবহার করতে হবে। 

আপনার যে অ্যাপটি ব্যবহারের কারনে বেশি সময় ব্যয় হয়।ঐ অ্যাপসটিকে এই your hour অ্যাপের মাধ্যমে যদি আপনি  lock করে রাখেন। তাহলে ঐ অ্যাপটিতে আর প্রবেশ করতে পারবেন না।

যেমন, যদি আপনি ফেসবুকের প্রতি বেশি আসক্ত হয়ে থাকেন। তাহলে ফেসবুক অ্যাপটিকে your hour  অ্যাপের মাধ্যমে আপনি লক করে রাখতে পারেন যতক্ষণ সময় ধরে আপনি লক করে রাখবেন। ততহ্মন পযন্ত আপনি ফেসবুক অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন না।

কোন নির্দিষ্ট অ্যাপ কে লক করে রাখার পর ওই অ্যাপটি ওপেন করলে নিচের মত দেখাবে। 

এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি আরেকটা জিনিস পাবেন। সেটা হচ্ছে আপনি অ্যাপটির মাধ্যমে জানতে পারবেন আপনার আজকে বা এই সপ্তায় কত ঘন্টা মোবাইল  ব্যবহার করেছেন। যার ফলে আপনি বুঝ‌তে পারবেন যে একদিনে বা এক সপ্তাহে আপনার মোবাইল ব্যবহারের ফলে কতটুকু সময় লস হচ্ছে। your hour app lock


অ্যাপটি ডাউনলোড করতে  প্লে স্টোরে গিয়ে your hour লিখে সার্চ করুন।

 আমাদের শেষ কথা

পুরো পোস্ট পড়ে আপনি বুঝতে পেরেছেন। কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়া যায়। তবে মোবাইল আসক্ত থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য আপনার মনের ইচ্ছাটাই সবচেয়ে বড়। সব সময় চেষ্টা করবেন মোবাইল থেকে দূরে থাকার। তাহলেই মোবাইল আসক্ত থেকে মুক্ত হবেন। আর্টিকেলটি ভাল লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। আল্লাহ হাফেজ।
Sharif ahmed Hlw! I am sharif ahmed,I am a content creator and student.

13 Responses to "কিভাবে মোবাইল আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়?"

Iklan Atas Artikel

Iklan Tengah Artikel 1

Iklan Tengah Artikel 2

Iklan Bawah Artikel

‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌