Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১

যদি আপনি কৃষিকাজ বা বাংলা উৎসব সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে থাকেন তবে সেক্ষেত্রে আপনার ‌‌‌‌বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১ জানাটা জরুরী হয়ে দাঁড়ায়। এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে ‌ বাংলা ‌ কত তারিখ আজ ২০২১ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

প্রত্যেক ভাষারই একটি নির্দিষ্ট ক্যালেন্ডার থাকে তেমনি বাংলা ভাষারও একটি নির্দিষ্ট ক্যালেন্ডার রয়েছে। এটি বাংলা ক্যালেন্ডার নামে পরিচিত।

বাংলা ক্যালেন্ডারের মাসের সংখ্যা বারোটি(১২)। বাংলা মাসের তারিখ নির্ণয় সূর্যের অবস্থান এর উপর ভিত্তি করে দেওয়া হয়। সূর্য মেষ রাশিতে থাকলে সেই মাসের নাম হয় বৈশাখ। 

‌আজকের বাংলা তারিখ 2021 | বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১

আমরা বাঙালি হওয়া সত্ত্বেও বাংলা তারিখ এবং সনের হিসাব আমাদের কাছে কঠিন মনে হয়। নানা কারনে আমাদের আজকের বাংলা তারিখ 2021 জানতে হয়। যেমন, বাংলার বিভিন্ন উৎসবের তারিখ জানার জন্য, ঋতু সম্পর্কে জানার জন্য।

আজ বাংলা কত তারিখ ২০২১

বাংলা মাসের হিসাব ধরে কৃষকরা বীজ বপন করে থাকে। তাছাড়া ‌আজকে বাংলা কত তারিখ‌ জানার মাধ্যমে কৃষকরা বৃষ্টি বা খরা সম্পর্কেও ধারণা পেয়ে থাকেন।

কৃষকদের জন্য আজ বাংলা মাসের কত তারিখ জানাটা খুবই জরুরি। বাংলাদেশের বাংলা ক্যালেন্ডার অনুসারে আজ বাংলা মাসের কত তারিখ আজ নিম্নরূপ দেওয়া হলো। 
আজকের বাংলা মাসের তারিখ 
৩০  আশ্বিন ১৪২৮  বঙ্গাব্দ
আজকের ইংরেজি মাসের তারিখ 
15 অক্টোবর  2021 

2021 সালের বাংলা ক্যালেন্ডার pdf download

বাংলা আষাঢ় মাসের কত তারিখ আজকে বা বাংলা যেকোন মাসের তারিখ গুলো জানার জন্য আপনার বাংলা ক্যালেন্ডারের প্রয়োজন হবে।


সেহ্মেত্রে আপনি যদি ‌‌বাংলা ক্যালেন্ডার পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে ডাউনলোড দিতে পারবেন।

বাংলা ক্যালেন্ডার pdf বিবরণঃ

বইয়ের নাম ‌বাংলা, ইংরেজি ও আরবি ক্যালেন্ডার
লেখক ‌........
‌সাইজ 1 এমবি
ফরম্যাট ‌পিডিএফ (PDF)
পাতা সংখ্যা 13 টি
ভাষা বাংলা (Bangla/Bengali)
‌‌নিচের দেওয়া ডাউনলোড বাটনটিতে ক্লিক করে বাংলা ক্যালেন্ডার pdf ডাউনলোড করুনঃ

কিভাবে ১৪২৮ সালের বাংলা ক্যালেন্ডার অ্যাপস ডাউনলোড করা যায়?

আজ বাংলা কত তারিখ ২০২১ ও বাংলা কত তারিখ কি বার এটা খুব সহজেই ১৪২৮ সালের বাংলা ক্যালেন্ডার অ্যাপস এর মাধ্যমে জানতে পারবেন।

প্লে-স্টোরে হাজার হাজার বাংলা ক্যালেন্ডার অ্যাপস রয়েছে তবে তার মধ্যে আজকে আমরা জনপ্রিয় ও ভালো বাংলা ক্যালেন্ডার অ্যাপস নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করব।

এই ‌ ক্যালেন্ডার অ্যাপসটার নাম হচ্ছে Bangla calendar. 2013 সালের অক্টোবর মাসে এই অ্যাপসটি প্লেস্টোরে আপলোড করা হয়। এই অ্যাপসটির প্লে-স্টোরে 4.4 রেটিং এর সাথে ডাউনলোড সংখ্যা প্রায় 1 মিলিয়ন প্লাস।

বাংলা ক্যালেন্ডারের বিশেষ দিন সমূহ, দিন পরিবর্তক, বয়স গণনা, তারিখ পার্থক্য, আজ থেকে দিন গণনা ও দেশ-বিদেশের সময় ইত্যাদি ফিচারস বা টুলস রয়েছে এই অ্যাপসটিতে।

বিশেষ দিন সমূহ ফিচারের মাধ্যমে খুব সহজেই বাংলা ক্যালেন্ডারের উৎসব এবং গুরুত্বপূর্ণ দিন গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

‌‌নিচের দেওয়া ডাউনলোড বাটনটিতে ক্লিক করে ১৪২৮ সালের বাংলা ক্যালেন্ডার অ্যাপসটি ডাউনলোড করুন।

বাংলা ক্যালেন্ডার তৈরি করেন কে?

বাংলা পঞ্জিকার প্রচলন কে করেন এটা নিয়ে ইতিহাসবিদদের মধ্যে মতভেদ থাকলেও অনেকেই মনে করেন মোগল সম্রাট আকবর এটি প্রচলন করেছেন।

বঙ্গাব্দ বা বাংলা সাল পয়লা বৈশাখ বা বৈশাখ মাসের প্রথম দিন থেকে শুরু হয়। বাংলা সাল সবসময় গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি বা ইংরেজি ক্যালেন্ডার থেকে ৫৯৩ বছর কম । বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে ১৯৮৭ সালে বাংলা পঞ্জিকা সংশোধন করা হয়।

বাংলা ক্যালেন্ডারের মাসের সংখ্যা কয়টি ও কী কী?

বাংলা ক্যালেন্ডারে মাসের সংখ্যা হলো বারোটি। এগুলো হলোঃ 
  1. বৈশাখ, 
  2. জ্যৈষ্ঠ, 
  3. আষাঢ়, 
  4. শ্রাবণ, 
  5. ভাদ্র, 
  6. আশ্বিন, 
  7. কার্তিক, 
  8. অগ্রহায়ণ, 
  9. পৌষ,
  10. মাঘ, 
  11. ফাল্গুন ও 
  12. চৈত্র

বাংলা ক্যালেন্ডারের ব্যবহার হয় কোন কাজে?

বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১
আমরা বাঙালি হলেও বর্তমান যুগে আমরা সব সময় ইংরেজি তারিখের উপর নির্ভরশীল। ইংরেজির পাশাপাশি আমাদের ‌‌বাংলা কি মাসের কত তারিখ জেনে রাখা উচিত। কারণ বিভিন্ন সময় ভাইভা পরীক্ষায় ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌বাংলা কোন মাসের কত তারিখ প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারেন যদি আপনার সাবজেক্ট বাংলা হয়ে থাকে।

ঋতু বৈচিত্রের কারনেই অনেক আগে থেকেই বাংলা সনের ক্যালেন্ডার জনপ্রিয়তা রয়েছে। বঙ্গদেশের জলবায়ুকে ছয়টি ঋতুতে ভাগ করা হয়েছে। বাংলা ক্যালেন্ডারের মাছ গুলোর উপর নির্ভর করি ঋতুগুলো বিভাজন করা হয়েছে।
 
পূর্বে সব কাজেই বাংলা ক্যালেন্ডার ব্যবহার হলেও এখন আর ব্যবহার হয় না। এখন শুধু বাংলাদেশের কৃষকদের মাঝে এই বাংলা ক্যালেন্ডারের মাসের তারিখ গণনা দেখা যায়।

বীজতলা তৈরী, বীজ বপন, ফসল তোলা ও ‌ফসলের যত্ন ইত্যাদি কাজে কৃষকেরা বাংলা মাসের ব্যবহার করে থাকেন। তবে সাধারণ মানুষের মাঝে বাংলা মাসের ব্যবহার এখন আর দেখা যায় না। ব্যবসা সহ অন্যান্য সকল কার্যক্রমে এখন ইংরেজি বা ‌‌গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জি নির্ভর হয়ে পড়েছে।

ধর্মীয় উৎসব পালনের ক্ষেত্রে এখনো বাংলা মাসের ব্যবহার দেখা যায়। বিশেষ করে হিন্দু ধর্মের বিভিন্ন অনুষ্ঠান বাংলা মাসের ওপর নির্ভর করে করা হয়।

সার্বজনীন ধর্মনিরপেক্ষ উৎসব হিসেবে বর্তমানে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করা হয় বৈশাখ মাসের প্রথম দিনে। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ অনেক কাজে বাংলা মাসের ব্যবহার দেখা যায়।

বাংলা ক্যালেন্ডারের বিশেষ দিন সমূহ কি কি?

বাংলা ক্যালেন্ডারের তারিখ হিসেবে অনেক গুলো বিশেষ দিন বা উৎসব রয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলোঃ
  • পহেলা বৈশাখ
  • পহেলা ফাল্গুন
  • নবান্ন উৎসব
  • দুর্গাপূজা
পহেলা বৈশাখঃ বাংলা বৈশাখ মাসের প্রথম দিন পহেলা বৈশাখ উদযাপন করা হয়। বাঙ্গালীদের একটি সর্বজনীন উৎসব হিসেবে পহেলা বৈশাখ পরিচিত। বিশেষ উৎসব হিসেবে বাংলাদেশ এবং ভারতে পহেলা বৈশাখ পালন করা হয়। বাংলা ক্যালেন্ডারে প্রথম দিন অর্থাৎ বঙ্গাব্দের প্রথম দিনই হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। 

পহেলা ফাল্গুনঃ‌‌  বাংলা ক্যালেন্ডারের এগারো তম মাস ফাল্গুনের প্রথম দিনে ও বসন্তের প্রথম দিন হচ্ছে পহেলা ফাল্গুন। ইংরেজি বর্ষপঞ্জী অনুসারে ফেব্রুয়ারি মাসের 14 তারিখ পহেলা ফাল্গুন পালিত হয়। বিশেষ উৎসবের সাথে বাংলাদেশে ফাল্গুনকে বরণ করে নেওয়ার জন্য এই উৎসব পালিত হয়।

নবান্ন উৎসবঃ নতুন বছরের আমন ধান কাটার পর সেই ধান থেকে উৎপন্ন চালের প্রথম রান্না উপলক্ষে নবান্ন উৎসব পালিত হয়ে থাকে। অগ্রহায়ণ মাসে আমন ধান উঠার পর নবান্ন উৎসব পালিত হয়।

দুর্গাপূজাঃ হিন্দু ধর্মালম্বীদের জন্য জনপ্রিয় একটি পূজা উৎসব হচ্ছেে দূর্গা পূজা। 2021 সালে বাংলা আশ্বিন মাসের শেষের দিকে দুর্গাপূজা পালিত হবে।

বাংলাদেশে বছরে কয়টি ঋতু আসে যায়?

আজ বাংলা কত তারিখ ২০২১
বাংলাদেশের বছরে ছয়টি ঋতু আসে যায়। বাংলাদেশের জলবায়ু অনুসারে এই ঋতু গুলোকে ছয়টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এগুলো হলোঃ
  • গ্রীষ্মকাল
  • বর্ষাকাল
  • শরৎকাল
  • হেমন্তকাল
  • শীতকাল
  • বসন্তকাল
গ্রীষ্মকালঃ গ্রীষ্মকালে সুর্যের প্রচণ্ড তাপ থাকে তাই এই সময় পানির পরিমাণ কমে যায়। গ্রীষ্মকালে আম, কাঁঠাল ও লিচু ইত্যাদি মৌসুমী ফল দেখা যায়।

বর্ষাকালঃ‌ গ্রীষ্মকালের পর আসে ‌‌‌‌‌বর্ষাকাল। এই সময় প্রচুর মুষলধারে বৃষ্টি হয়। যার ফলে গৃষ্ম কালে শুকিয়ে যাওয়া পানির অভাব বর্ষাকালে দূর হয়ে যায়।

শরৎকালঃ বাংলাদেশের ছয়টি ঋতুর তৃতীয় ঋতু হচ্ছে শরৎকাল। শরৎকালের কাশফুল ও পদ্মশালি ইত্যাদি ফুল ফুটে থাকে। আকাশে সাদা মেঘ দেখা যায় শরৎকালে।

হেমন্তকালঃ হেমন্ত কালে কৃষকরা আমন ধান কাটার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়ে। এই সময় আমন ধান ঘরে ওঠানোর পর শুরু হয় নবান্ন উৎসব।

শীতকালঃ খেজুরের রস দিয়ে শীতকালে বিভিন্ন ধরনের পিঠা পায়েস তৈরি করা হয়। এই সময়ে কুল ফুল ফুটে থাকে। ঘুরে বেড়ানোর আদর্শ সময় হচ্ছে শীতকাল। শীতকালে সকল গাছের পাতা ঝরে পড়ে যায়।

বসন্তকালঃ বাংলা ক্যালেন্ডার এর সর্বশেষ ঋতুু হচ্ছে 
বসন্তকাল।  এইসময় শীতকালে যেসব গাছের পাতা ঝরে গেছে সেইসব গাছে নতুন পাতা গজানো শুরু হয়।

কোন কোন মাস নিয়ে কোন ঋতু হয়?

ছয় ঋতু বাংলা বর্ষপঞ্জির বারটি মাসকে ছয়টি ভাগে বিভক্ত করেছে। প্রত্যেকটি ঋতু বাংলা বর্ষপঞ্জি দুটি মাস নিয়ে গঠিত।

ঋতু নাম ‌বাংলা মাসের নাম
গ্রীষ্মকাল ‌বৈশাখ ও জ্যৈষ্ঠ
‌বর্ষাকাল আষাঢ় ও শ্রাবণ
শরৎকাল ‌ভাদ্র ও আশ্বিন
হেমন্তকাল কার্তিক ও অগ্রহায়ণ
শীতকাল পৌষ ও মাঘ
বসন্তকাল ফাল্গুন ও চৈত্র

‌‌আমাদের শেষ কথা

আশা করছি এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে‌ ‌বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১ সম্পর্কে সম্পূর্ণ রূপে জানতে পারলেন। আমরা এই আর্টিকেলটিতে আজ বাংলা কত তারিখ কি বার সেটা নিয়ে আলোচনা করলাম। 

তাছাড়া বাংলা ক্যালেন্ডার ইতিহাস ও বাংলা ক্যালেন্ডার এর সম্পূর্ণ পরিচিতি নিয়ে আমারা বিস্তারিত আলোচনা করেছি। যদি আপনি আর্টিকেলটি সম্পূর্ণরূপে পড়ে থাকেন তাহলে ‌‌আজ বাংলা কোন মাসের কত তারিখ সেটা জেনে থাকবেন আশাকরি।
Sharif ahmed
Sharif ahmed ব্লগিং করা আমার স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলায় টেকনোলজি নিয়ে ব্লগিং শুরু করেছি।

Post a Comment for "বাংলা মাসের কত তারিখ আজ ২০২১"