বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায়

ঘরে বসে কিভাবে বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় এটা নিয়ে সবাই জানতে চান। অনেকের ধারণা ল্যাপটপ বা কম্পিউটার ছাড়া মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম করা যায় না। কিন্তু সঠিক দক্ষতা থাকলে খুব সহজেই মোবাইল দিয়ে মাসে আট থেকে দশ হাজার টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার কিছু সংখ্যক অ্যাপ রয়েছে যেগুলা দিয়ে ইনকাম করে আপনি শুধু এমবি খরচ জোগাতে পারবেন। কিন্তু আপনার যদি ভাল কোন দক্ষতা থাকে তাহলে মোবাইল দিয়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করাটা খুব সহজ বিষয় নয়। যারা ঘরে বসে টাকা আয় করতে চান তাদের মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হবে এবং অনলাইন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে। আর্টিকেল রাইটিং বা ফটোগ্রাফি এরকম ধরনের দক্ষতা অর্জন করে দুই থেকে তিন ঘণ্টা সময় দিয়ে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায়

বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায়

আমি অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন এবং স্বপ্ন দেখার জন্য কিছু সৃজনশীল উপায় সম্পর্কে আলোচনা করব। এই উপায়গুলি অবলম্বন করে ঘরে বসে অথবা যে কোন জায়গা থেকে মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইনে কিছু কাজ রয়েছে যেগুলোতে আপনি দিনের অল্প কিছু সময় ব্যয় করলে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তাছাড়া মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট নিতে পারবেন।  আমি আপনাদের সাথে ছয়টি বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় নিয়ে আলোচনা করব।

যদি আপনি ভাবেন আজকের আলোচনা করা মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো দিয়ে দুই থেকে তিন দিনে অনেক টাকা ইনকাম করে ফেলবেন তাহলে এটা আপনার ভুল ধারণা। আজকে আলোচনা করা উপায় গুলো দিয়ে অনলাইনে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করা সম্ভব হবে কিন্তু তার জন্য আপনার ধৈর্য ও দক্ষতার দরকার হবে।

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২২

অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনার ছয় থেকে সাত মাস বা এক বছর পর্যন্তও লাগতে পারে। এই সময়টা নির্ভর করে আপনি কতটা তাড়াতাড়ি নিজেকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন তার উপর।

১. কন্টেন্ট লিখে আয়

লেখালেখি/কনটেন্ট লিখে অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করা সবচেয়ে সহজ এবং জনপ্রিয় একটি উপায়। তবে লেখালেখি করে মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার জন্য আপনাকে অবশ্যই লেখালেখি সম্পর্কে দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

মোটামুটি সব ধরনের বিষয় নিয়ে লেখালেখি করে আপনি অনলাইন ইনকাম করতে পারেন। যেমন টেকনোলজি বিষয়ক লেখা, বিজ্ঞান বিষয়ক লেখা, স্বাস্থ্য বিষয়ক লেখা এমনকি গল্প বা কবিতা লিখেও টাকা আয় করতে পারবেন।

কিভাবে লেখালেখি করে টাকা ইনকাম করব?

লেখালেখি করে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনার লেখালেখি করার অভ্যাস থাকতে হবে। আপনার যদি লেখালেখি করার অভ্যাস থাকে তাহলে বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল ওয়েবসাইটে নিউজ লিখে টাকা আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে ২০২২

অনলাইনে বিভিন্ন এজেন্সির সাইট রয়েছে যারা আর্টিকেল বা কনটেন্ট কিনে নিয়ে থাকে। Ordinaryit.com এবং grathor.comitblogbd.com ওয়েবসাইটে আপনি আর্টিকেল লিখতে পারবেন এবং তার বিনিময় মাসে ভালো টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

প্রথমাবস্থায় আপনার আর্টিকেলগুলো বিক্রি করার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কন্টাক্ট পেজ থেকে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। আপনি যদি এসইও ফ্রেন্ডলি এবং হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলে খুব সহজেই আপনার আর্টিকেলগুলো বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিক্রি করতে পারবেন।

আপনি যদি প্রথম এসইও ফ্রেন্ডলি এবং হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল লিখে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিক্রি করে বিশ্বস্ততা অর্জন করতে পারেন তাহলে পরবর্তীতে আপনার কাস্টমারের অভাব পড়বে না।

প্রথম আপনি গুগোল ডকস অ্যাপের মাধ্যমে কিছু আর্টিকেল লিখে স্যাম্পল হিসেবে রাখতে পারেন। কারণ কোন ওয়েবসাইট বা এজেন্সির কাছে আর্টিকেল বিক্রি করার জন্য তারা পূর্বে লেখা আর্টিকেল এর স্যাম্পল দেখতে চায়।

যদি আপনার নিয়মিত লেখালেখির অভ্যাস থাকে তাহলে আর্টিকেল বিক্রি করে আপনি মাসে খুব সহজেই আট থেকে দশ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ পড়ালেখার পাশাপাশি আয় করার উপায়

একটি বাংলা ১০০০ ওয়ার্ড এসইও ফ্রেন্ডলি এবং হাই কোয়ালিটি আর্টিকেলের মূল্য মার্কেটে 200 থেকে 400 টাকা। এবং যদি আপনি ইংরেজি আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলে একটি ইংরেজী ১০০০ ওয়ার্ড এসইও ফ্রেন্ডলি এবং হাই কোয়ালিটি আর্টিকেলের মূল্য মার্কেটে 500 থেকে 1000 টাকা। তাই ভালোভাবে আর্টিকেল রাইটিং শিখতে পারলে আপনার মাসে ভালো পরিমাণ ইনকাম করা কোন কঠিন ব্যাপার নয়।

২. ছবি বিক্রি করে ইনকাম

ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম

অনেকের কাছে ছবি বিক্রি করে ইনকাম করাটা একটি অবিশ্বাস্য বিষয়। আপনি যদি প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার হন তাহলে মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি অনলাইন প্লাটফর্ম বিক্রি করে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে প্রচুর ধৈর্য ধরতে হবে।

যদি আপনার মোবাইল দিয়ে দুর্দান্ত ছবি তোলায় পারদর্শী হন তাহলে আপনার ছবিগুলো খুব সহজেই অনলাইন প্লাটফর্ম বিক্রি করতে পারবেন। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া সাইট যেমন ফেসবুকে বিভিন্ন  গ্রুপে আপনি আপনার মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি গুলো বিক্রি করতে পারেন।

Stockimage ওয়েবসাইটটিতে আপনি আপনার তোলা হাই কোয়ালিটি ছবি আপলোড করে রাখতে পারেন। তবে এই ছবিগুলো বিক্রি হতে কিছুটা সময় লাগবে। যখন আপনি নিয়মিত হাই কোয়ালিটি ছবি আপলোড করতে পারবেন এবং আপনার প্রোফাইলে বিভিন্ন ক্যাটাগরির ছবি থাকবে তখন ধীরে ধীরে আপনার ছবি বিক্রি শুরু হবে।


Stockimage ওয়েবসাইট এর পাশাপাশি আপনি Adobe ও bigstockphoto ওয়েবসাইটগুলোতে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ছবি বিক্রি করার জন্য আপলোড করে রাখতে পারেন। বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায়ের মধ্যে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম অন্যতম। যদি আপনি মোবাইল দিয়ে ছবি তোলার ক্ষেত্রে খুব পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে ছবি বিক্রি করে মাস শেষে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে সক্ষম হবেন।

৩. ডোমেইন নেম বিক্রি করে আয়

ডোমেইন নাম হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের নাম। প্রযুক্তির যত উন্নয়ন হচ্ছে তেমনি ধীরে ধীরে ওয়েবসাইটের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমান এই যুগে একটা ওয়েবসাইট খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ওয়েবসাইট খোলার প্রথম এবং প্রধান ধাপ হচ্ছে একটি ডোমেইন নেম কেনা। মানুষের পরিচয় যেমন শুরুতে তার নাম দিয়ে জানা হয় তেমনি একটি ওয়েবসাইটের সম্পর্কে জানার জন্য সর্বপ্রথম যে বিষয় সেটা হচ্ছে ওয়েবসাইটের ডোমেন নেম সম্পর্কে জানা।
কিভাবে ডোমেইন নেম বিক্রি করে ইনকাম করা যায়?
ডোমেইন নেম বিক্রি করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনাকে ভালো পরিমাণ টাকা ইনভেস্ট করতে হবে। এমনকি সেই টাকা অনেকদিন যাবত পর্যন্ত আপনার ইনভেস্ট করে রাখার প্রয়োজন পড়তে পারে।

ডোমেইন নেম বিক্রি করে ইনকাম করার জন্য আপনাকে পছন্দনীয়, জনপ্রিয় এবং পড়তে সুবিধা হয় এমন ওয়ার্ড দিয়ে কিছু ডোমেইন নেম কিনে রাখতে হবে।

আরও পড়ুনঃ টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট 2022 বাংলাদেশ

বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে যারা তাদের ব্যবসা শুরু করার পূর্বে একটি ওয়েবসাইট খুলে থাকে। এই ওয়েবসাইট খোলার সময় তাদের ডোমেইন নেম কেনার প্রয়োজন পরে। তারা ডোমেইন নেম কিনতে গিয়ে যদি দেখে আপনার কেনা ডোমেইনট তাদের কোম্পানির নামের সাথে মিল রয়েছে বা আপনার ডোমেইনটি তাদের ওয়েবসাইটের জন্য খুব ভালো হবে। তাহলে তারা আপনার থেকে সেই ডোমেইনটি খুব বেশি দামে কিনে নেবে।

অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ডোমেন সেল করার জন্য যুক্ত করে রাখা যায়। এর জন্য সেই সকল ওয়েবসাইট গুলোকে কিছু পরিমাণ টাকা ডোমেইন বিক্রির সময় দিতে হয়। আপনি আপনার মেধা ব্যবহার করে খুব সুন্দর নামের কিছু ডোমেইন নেম কিনে রাখলে পরবর্তীতে সেই সকল ডোমেইন নাম গুলো অনেক দামে বিক্রি করতে পারবেন।

তবে সব ধরনের জানেন আপনি বিক্রি করতে পারবেন না। অর্থবোধক এবং কম শব্দের ডোমেইনগুলো খুব তাড়াতাড়ি মার্কেটে বিক্রি হয়ে যায়। ডোমেইন নেম বিক্রি করে অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করার জন্য আপনাকে এসব বিষয় নিয়ে প্রচুর পরিমাণ ঘাটাঘাটি করতে হবে। ডোমেইন বিক্রি করে আপনি ঘরে বসেই মাসে ২০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

৪. কোর্স বিক্রি করে ইনকাম

কোর্স বিক্রি করে ইনকাম করা বর্তমানে অনলাইন জগতে খুবই জনপ্রিয় একটি উপায়। কোর্স বিক্রি করে ইনকাম করার জন্য আপনাকে যেকোন একটি বিষয়ে পারদর্শী হতে হবে।

যেমন, যদি আপনি ইংরেজি খুব ভালো পারেন তাহলে স্পোকেন ইংলিশ নামে একটি কোর্স তৈরি করতে পারেন। সেই কোর্সটিতে আপনি অন্যজনকে ইংরেজি শিখিয়ে দিবেন। এরকম আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন, কোরআন শিক্ষানো, ফেসবুক মার্কেটিং, ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং ইত্যাদি ভিডিও কোর্স তৈরি করে অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন।

প্রথমাবস্থায় আপনি স্পন্সরেরের মাধ্যমে এড দিয়ে বা  বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন ফেসবুকে আপনার কোর্স সম্পর্কিত বিভিন্ন গ্রুপের মাধ্যমে আপনার ভিডিও কোর্সটি বিক্রি করতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে সক্ষম হবেন। তবে এর জন্য আপনাকে অবশ্যই কোন একটি বিষয়ে ভালোভাবে পারদর্শী হওয়া দরকার পড়বে।

৫. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২২

বর্তমানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করা খুবই জনপ্রিয় একটি উপায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রত্যেক বছরই এটা জনপ্রিয়তা কমে এবং বাড়ে কিন্তু দিনে দিনে এটার জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর সবচেয়ে ভালো দিকগুলো হচ্ছে আপনি Shopify, Amazon, Uber এবং FabFitFun এরকম বড় বড় যেকোনো ওয়েবসাইটের অ্যাফিলিয়েট করে ইনকাম করতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে যে কোন ব্রান্ডের প্রচার করে আপনি ইনকাম করতে পারবেন। আপনি যদি এসব বিষয়ে দক্ষ হন তাহলে খুচরা পণ্য সফটওয়্যার এবং অন্যান্য আরো অনেক কিছু প্রচার করে কমিশন পেতে পারেন পারেন।

আরও পড়ুনঃ বিকাশ অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায়

আপনি আপনার ব্লগ সাইটের ব্লগ পোস্টে অ্যাফিলিয়েট লিংক ব্যবহার করে অন্য ব্র্যান্ডের পণ্য বিক্রি করে ইনকাম করতে পারেন।

যদি আপনি আসলেই এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে চান তাহলে আপনার সবচেয়ে প্রধান কাজ হবে কনটেন্ট মার্কেটিং এর দিকে নজর দেওয়া। হাই কোয়ালিটি আর্টিকেল দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য যোগ্য করে তুলতে পারেন।

৬. ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে আয়

অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করার অন্যতম একটি উপায় হচ্ছে ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে ইনকাম। বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়ের মধ্যে ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে আয় একটি। আপনার যদি ভিডিও তৈরি করার দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি এখনই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলুন। ইউটিউব চ্যানেল খোলার পর এমন একটি বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করা শুরু করুন যেই বিষয়টিতে আপনি পারদর্শী এবং যেই বিষয়টিতে ইউটিউবে কম্পিটিশন কম রয়েছে।

আপনার ইউটিউব চ্যানেলটিতে 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং 1000 সাবস্ক্রাইবার হওয়ার পর গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন। যদি আপনার চ্যানেলে ভালো পরিমান ভিউ হয়ে থাকে। তাহলে ইউটিউব চ্যানেলে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে মনিটাইজেশন পাওয়ার পর মাস শেষে ভালো পরিমাণে একটা ইনকাম করতে পারবেন।

তাছাড়া অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এবং স্পন্সর এডের মাধ্যমেও ইউটিউব চ্যানেল থেকে ইনকাম করা যায়। যদি আপনি কোন একটি বিষয়ে পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে ইউটিউব চ্যানেল খুলে ভালো ভালো ভিডিও আপলোড করে খুব তাড়াতাড়ি সফল হতে পারবেন।

শেষ কথা

আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে বাংলাদেশে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

আজকে আলোচনা করা মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার ছয়টি উপায় থেকে আপনি যেই বিষয়টিতে পারদর্শী সেই বিষয়টি নিয়ে কাজ করা এখনই শুরু করে দিন। আর্টিকেলটি ভালো লাগলো আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার।

Please Share this On:

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url