Jjjjj
Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২১

তথ্যপ্রযুক্তির এই দিনে স্মার্টফোনের ব্যবহার দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। সকাল স্মার্টফোন কোম্পানিগুলোই কম দামে মোবাইল ফোন রিলিজ করার চেষ্টা করতেছে।

সেই হিসেবে বাংলাদেশে ৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল তৈরি করা কোম্পানি গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে সিম্ফোনি, ওয়ালটন, ‌ ম্যাক্সিমাস এবং আইটেল।
তবে এই কম বাজেটের স্মার্টফোনগুলোতে তেমন বেশি স্পেসিফিকেশন আশা করা যায় না। লো প্রসেসর এবং কম ক্যাপাচিটি ব্যাটারি যুক্ত হওয়ায় কোনরকম চলনসই হয় এই মোবাইল গুলো।

তবে ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে মোবাইল গুলোতে অনেক ধরনের সুবিধা রয়েছে। চতুর্থ প্রজন্মের অর্থাৎ ফোরজি ইন্টারনেট সুবিধা ব্যবহার করার কারণে এই মোবাইল গুলো দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় খুব সহজেই।


আপনি যদি একটি অল্প বাজেটের অর্থাৎ দুই থেকে পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে একটি স্মার্টফোন খুঁজছেন। তাহলে আর্টিকেলটি বিস্তারিত পড়ুন। কারণ আজকের এই আর্টিকেলটিতে 2 থেকে 5 হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন গুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে। ‌

অনেকেই স্মার্টফোন ব্যবহারের শখ পূরণ করার জন্য অল্প বাজেটের স্মার্টফোন কেনার স্বপ্ন দেখে থাকে। সে ক্ষেত্রে আপনিও যদি তাদের একজন হয়ে থাকেন। তাহলে বলতে পারি অল্প বাজেটে একটি ভালো স্মার্টফোন কেনার স্বপ্নটা আপনার অবশ্যই পূরণ হবে।

৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২১

স্মার্টফোনের মাধ্যমেই আমরা হাতের মুঠে ইন্টারনেট প্রযুক্তির নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেয়ে যাচ্ছি। একটি স্মার্টফোনের ডিজাইন, স্পেসিফিকেশন, ফাংশন সবকিছু নির্ভর করে স্মার্টফোনটি তৈরি করা কোম্পানি এবং স্মার্টফোনটির দামের পার্থক্য উপর।

আজকে আলোচনা করব শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য অল্প বাজেটের পাঁচটি সেরা স্মার্টফোন নিয়ে। স্মার্টফোন গুলোর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে হাতের মুঠোয় পেয়ে যাবেন নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা।

1.Symphony G10

৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২১
৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল বাংলাদেশ নিয়ে আলোচনা করা মোবাইল গুলোর মধ্যে এটিও অন্যতম। কারণ এই মোবাইলটি মূল্য মাত্র 4 হাজার 290 টাকা। এই মোবাইলটির নেটওয়ার্কে হিসেবে 4 জি নেটওয়ার্ক রয়েছে।

এই মোবাইলের ডিসপ্লে হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 854*480 রেজুলেশনের 5 ইঞ্চি FWVGA টাচস্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে।

2000 এমএইচ ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে মোবাইলটির ব্যাকাপ সুবিধা দেওয়ার জন্য। যার কারণে মোবাইলটির ওজন কম হবে। মোবাইলটার ওজন মাত্র 173.8 গ্রাম।


অ্যান্ড্রয়েড 9 অপারেটিং সিস্টেমের সাথে রয়েছে 1.4 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর। জিপিও হিসেবে রয়েছে Mali T820 Mpi.

8 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজে সাথে রয়েছে 1 জিবি র্যাম। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ইন্টার্নাল স্টোরেজ সর্বোচ্চ 32 জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

পিছনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। পিছনের ক্যামেরা ফিচারস হিসেবে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ এবং 2 গুন জুম।

সামনের ক্যামেরা হিসাবেও রয়েছে মাত্র একটি ক্যামেরা 5 মেগাপিক্সেলের। সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক সিস্টেম নেই।

Symphony G10 features:
দাম 4290 টাকা 1/8 জিবি ভার্সন।
ডিসপ্লে 5 ইঞ্চি 854*450 রেজুলেশন ডিসপ্লে।
ক্যামেরা সামনে 5 মেগাপিক্সেল ও পিছনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
রেম 1 জিবি
রম 8 জিবি
প্রসেসর 1.4 গিগাহার্জ কোয়াড কোর।
ব্যাটারি ও ফাস্ট চার্জিং 2000 এমএইচ ব্যাটারি।
ওজন 173.8 গ্রাম
ফিঙ্গারপ্রিন্ট

2. Symphony V99 plus


এই মোবাইলের নেটওয়ার্ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 3 জি নেটওয়ার্ক। তাই এই মোবাইলটির মূল্য মাত্র 3 হাজার 890 টাকা। 

1280*720 রেজুলেশনের ফাইভ (5) ইঞ্চি 297 পিপিআই টাচস্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে রয়েছে মোবাইলটিতে।

1.3 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর এর সাথে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 9। Mali T820 Mpi জিপিও রয়েছে।

এই মোবাইলটির রেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 1 জিবি রেম। এবং ইন্টারনাল স্টোরেজ হিসেবে রয়েছে 8 জিবি। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ 32 জিবি ইন্টার্নাল স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে।

ব্যাকাপ সুবিধা দেওয়ার জন্য মাত্র 2 হাজার এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে মোবাইলটিতে।

সামনের ক্যামেরা হিসাবেও রয়েছে মাত্র একটি ক্যামেরা 5 মেগাপিক্সেলের। সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক সিস্টেম নেই।

পিছনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। পিছনের ক্যামেরা ফিচারস হিসেবে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ, 2 গুন জুম, প্যানোরোমা ও এইচডিআর।
Symphony v99+ features:
দাম 3890 টাকা 1/8 জিবি ভার্সন।
ডিসপ্লে 1280*720 রেজুলেশনর 5 ইঞ্চি ডিসপ্লে।
ক্যামেরা সামনে 5 মেগাপিক্সেল ও পিছনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
রেম 1 জিবি
রম 8 জিবি
প্রসেসর 1.4 গিগাহার্জ কোয়াড কোর।
ব্যাটারি ও ফাস্ট চার্জিং 2000 এমএইচ ব্যাটারি।
ওজন
ফিঙ্গারপ্রিন্ট

‌‌3.Maximus D7



৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল বাংলাদেশ নিয়ে আলোচনা করা মোবাইল গুলোর মধ্যে এটিও অন্যতম। কারণ এই মোবাইলটি মূল্য মাত্র 3 হাজার 499 টাকা। এই মোবাইলটির নেটওয়ার্কে হিসেবে 4 জি নেটওয়ার্ক রয়েছে।

8 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজে সাথে রয়েছে 1 জিবি রেম। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ইন্টার্নাল স্টোরেজ সর্বোচ্চ 32 জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

এই মোবাইলের ডিসপ্লে হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 768*480 রেজুলেশনের 4 ইঞ্চি WVGA টাচস্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও 8 অপারেটিং সিস্টেমের সাথে রয়েছে মিডিয়াটেক চিপসেট MT6739 ও আরো রয়েছে 1.3 গিগা হার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর। জিপিও হিসেবে রয়েছে Power VR 8100.

1800 এমএইচ ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে মোবাইলটির ব্যাকাপ সুবিধা দেওয়ার জন্য। যার কারণে মোবাইলটির ওজন কম হবে।

পিছনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সামনের ক্যামেরা হিসাবেও রয়েছে মাত্র একটি ক্যামেরা 2 মেগাপিক্সেলের। সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক সিস্টেম নেই।
Maximus D7 features:
দাম 3499 টাকা 1/8  ভার্সন।
ডিসপ্লে 5 ইঞ্চি 768*480 রেজুলেশন ডিসপ্লে।
ক্যামেরা সামনে 5 মেগাপিক্সেল ও পিছনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
রেম 1 জিবি
রম 8 জিবি
চিপসেট ও প্রসেসর মিডিয়াটেক MT6739 ও 1.3 গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রসেসর।
ব্যাটারি 1800 এমএইচ ব্যাটারি।
ওজন
ফিঙ্গারপ্রিন্ট
‌‌

4.Maximus P7 plus


এই মোবাইলের নেটওয়ার্ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 4 জি নেটওয়ার্ক। তাই এই মোবাইলটির মূল্য মাত্র 4 হাজার 900 টাকা।

এইচডি প্লাস রেজুলেশনের 5.45 ইঞ্চি 297 পিপিআই টাচস্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে রয়েছে মোবাইলটিতে।

1.3 গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর এর সাথে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড  ওরিও 8। Mali T820 Mpi জিপিও রয়েছে।

ব্যাকাপ সুবিধা দেওয়ার জন্য মাত্র 2500 এমএএইচ ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে মোবাইলটিতে।

এই মোবাইলটির রেম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 1 জিবি রেম। এবং ইন্টারনাল স্টোরেজ হিসেবে রয়েছে 8 জিবি। মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ 64 জিবি ইন্টার্নাল স্টোরেজ ব্যবহার করা যাবে।

সামনের ক্যামেরা হিসাবেও রয়েছে মাত্র একটি ক্যামেরা 5 মেগাপিক্সেলের। সিকিউরিটি দেওয়ার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলক সিস্টেম নেই।

পিছনের ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। পিছনের ক্যামেরা ফিচারস হিসেবে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ।
Maximus P7 plus features:
দাম 4900 টাকা 1/8 জিবি ভার্সন।
ডিসপ্লে 5.45 ইঞ্চি এইচ ডি প্লাস রেজুলেশন ডিসপ্লে।
ক্যামেরা সামনে 5 মেগাপিক্সেল ও পিছনে 5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
রেম 1 জিবি
রম 8 জিবি
প্রসেসর 1.3 গিগাহার্জ কোয়াড কোর।
ব্যাটারি ও ফাস্ট চার্জিং 2500 এমএইচ ব্যাটারি। 
ওজন 163 গ্রাম
ফিঙ্গারপ্রিন্ট
‌‌

শেষ কথা

আজকে আর্টিকেলটিতে ‌৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল এগুলোর দামও ফিচারস সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি।

আশা করছি আপনার এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে 5000 টাকার স্মার্টফোন সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন। আমরা চেষ্টা করেছি সবগুলো মোবাইলের বিস্তারিত স্পেসিফিকেশন আপনাদের সাথে আলোচনা করার।

Tag: ‌৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২১, কম দামে ভালো মোবাইল, ৫০০০ টাকার মধ্যে মোবাইল ২০২১ বাংলাদেশ,‌ ৫০০০ টাকার মধ্যে 4g মোবাইল বাংলাদেশ,‌


Sharif ahmed
Sharif ahmed ব্লগিং করা আমার স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলায় টেকনোলজি নিয়ে ব্লগিং শুরু করেছি।

Post a Comment for "৫ হাজার টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল ২০২১"