Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১ - (Low budget smartphone)

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১
১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন নিয়ে আসা কোম্পানিগুলো হচ্ছে ইনফিনিক্স, টেকনো, সিম্ফোনি ও ওয়ালটন ইত্যাদি। এই মোবাইল কোম্পানিগুলো বাংলাদেশ মোবাইল বাজারে নিত্যনতুন মোবাইল প্রতিনিয়ত রিলিজ করে যাচ্ছে।

প্রযুক্তির এই যুগে স্মার্টফোন সকলের হাতে পৌঁছে দেওয়ার জন্য মোবাইল কোম্পানিগুলো মোবাইলের দাম দিনে দিনে সহজলভ্য করে দিচ্ছে। সেই দিক বিবেচনায় কম বাজেটে ভালো ভালো স্মার্ট ফোন বাজারে দেখা যাচ্ছে।

কম বাজেটের মোবাইলগুলোতে ভালো স্নাপড্রাগণ প্রসেসর ব্যবহার করা হয় না। তবে মোটামুটি ভালো ধরনের মিডিয়াটেক প্রসেসর ব্যবহার করা হয়।

এই অল্প বাজেটের মোবাইলগুলো দিয়ে ফেসবুক, ইউটিউব সহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ গুলো স্মুথলি চালানো যায়। তবে এই বাজেটের মোবাইল গুলো দিয়ে হাই-গ্রাফিক্স গেম স্মুথলি খেলা যায় না।

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১


আজকের এই আর্টিকেলটিতে ১০-১২ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে ভাল স্মার্টফোন গুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে। যার কারনে যারা 10 থেকে 12 হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন কিনতে চাচ্ছেন এই আর্টিকেলটি তাদের উপকারে আসবে।

এই আর্টিকেলটিতে ইনফিনিক্স, টেকনো, সিম্ফোনি ও ওয়ালটন  মোবাইল কোম্পানির ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন গুলো সম্পর্কে আলোচনা করব।

1.Techno Spark 7

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন
মোবাইলটিতে 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 4 জিবি রেম (Ram).  এই মোবাইলটির দাম 11 হাজার 990 টাকা

Techno spark 7 মোবাইলটিতে 6.5 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে।  720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।

মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 16 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে এআই ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই Techno Spark 7 মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 6000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে ১০-১১ ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

মিডিয়াটেক হেলিও জি৭০
চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং অন-ইউআই হিসেবে থাকছে HiOS 7.5 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.5 গিগাহার্জ প্রসেসর।

মিডিয়াটেক হেলিও জি৭০ চিপসেট ব্যবহারের ফলে মোবাইলটি দিয়ে গেমিং পারফরম্যান্স হবে দুর্দান্ত। যারা ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন খুঁজছেন তারা এই ফোনটি কিনতে পারেন।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Techno spark 7 Features:

  •  6.5 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 4 জিবি রেম ও 64 জিবি রম।
  • 6000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • মিডিয়াটেক হেলিও জি৭০ চিপসেট।
  • পিছনে 16+Al দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

2. Walton Primo R8

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১

মোবাইলটিতে 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 4 জিবি রেম (Ram). এ  এই মোবাইলটির দাম 11 হাজার 499 টাকা।

Walton Primo R8 মোবাইলটিতে 6.5 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।

মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 8-9 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

মিডিয়াটেক হেলিও জি৩৫ চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 10 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.3 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Walton Primo R8 features:

  • 6.5 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 4 জিবি রেম ও 64 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • মিডিয়াটেক হেলিও জি35 চিপসেট।
  • পিছনে 13+2 দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

3.Symphony Z35

Symphony Z35
মোবাইলটিতে একটি ভার্সনে 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 3 জিবি রেম (Ram). এবং অন্য একটি ভার্সনে 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 4 জিবি রেম (Ram) রয়েছে।

3 জিবি রেম 32 জিবি রম ভার্সনটার দাম 9 হাজার 490 টাকা। এবং 4 জিবি রেম 64 জিবি রম ভার্সনটার দাম 10 হাজার 490 টাকা। 

Symphony Z35 মোবাইলটিতে 6.82 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।

মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে তিনটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 2+0.08 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 6000 এমএএইচ non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 10-11 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

মিডিয়াটেক হেলিও জি৩৫ চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.3 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Symphony Z35 features:

  • 6.82 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 4 ও 3 জিবি রেম ও 64 ও 32 জিবি রম।
  • 6000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • মিডিয়াটেক হেলিও জি35 চিপসেট।
  • পিছনে 13+2+0.08 তিনটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

4.Vivo Y11

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১

মোবাইলটিতে 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 3 জিবি রেম (Ram). এ এই মোবাইলটির দাম 11 হাজার 990 টাকা।

Vivo Y11 মোবাইলটিতে 6.35 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1544 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।


মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।

গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 8-10 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

কোয়ালকম স্নাপড্রাগণ 439 চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 9 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.3 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Vivo Y11 features:

  • 6.35 ইঞ্চি 720 x 1544 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 3 জিবি রেম ও 32 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • কোয়ালকম স্নাপড্রাগণ 439 চিপসেট।
  • পিছনে 13+2 দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

শেষ কথা

যারা 12 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2021 পাচ্ছেন আশা করি এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে 12 হাজার টাকার মধ্যে কোন গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এই আর্টিকেলটিতে ব্যবহৃত ফোন গুলোর দাম যেকোনো সময় পরিবর্তন হতে পারে।

উপরে উল্লেখিত কোন গুলোর মধ্যে যারা ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন খোঁজ করছেন তারা টেকনো স্পার্ক 7 ফোনটি কিনতে পারেন।
Sharif ahmed
Sharif ahmed ব্লগিং করা আমার স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে বাংলায় টেকনোলজি নিয়ে ব্লগিং শুরু করেছি।

1 comment for "১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১ - (Low budget smartphone)"

দয়াকরে কমেন্ট স্প্যামিং থেকে বিরত থাকুন !