12000 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2022 - (Low budget smartphone)

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২১
১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন নিয়ে আসা কোম্পানিগুলো হচ্ছে ইনফিনিক্স, টেকনো, সিম্ফোনি ও ওয়ালটন ইত্যাদি। এই মোবাইল কোম্পানিগুলো বাংলাদেশ মোবাইল বাজারে নিত্যনতুন মোবাইল প্রতিনিয়ত রিলিজ করে যাচ্ছে।

প্রযুক্তির এই যুগে স্মার্টফোন সকলের হাতে পৌঁছে দেওয়ার জন্য মোবাইল কোম্পানিগুলো মোবাইলের দাম দিনে দিনে সহজলভ্য করে দিচ্ছে। সেই দিক বিবেচনায় কম বাজেটে ভালো ভালো স্মার্ট ফোন বাজারে দেখা যাচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ 10000 টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল বাংলাদেশ 2022

কম বাজেটের মোবাইলগুলোতে ভালো স্নাপড্রাগণ প্রসেসর ব্যবহার করা হয় না। তবে মোটামুটি ভালো ধরনের মিডিয়াটেক প্রসেসর ব্যবহার করা হয়।

এই অল্প বাজেটের মোবাইলগুলো দিয়ে ফেসবুক, ইউটিউব সহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ গুলো স্মুথলি চালানো যায়। তবে এই বাজেটের মোবাইল গুলো দিয়ে হাই-গ্রাফিক্স গেম স্মুথলি খেলা যায় না।

12000 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2022


আজকের এই আর্টিকেলটিতে ১০-১২ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে ভাল স্মার্টফোন গুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে। যার কারনে যারা 10 থেকে 12 হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন কিনতে চাচ্ছেন এই আর্টিকেলটি তাদের উপকারে আসবে।

এই আর্টিকেলটিতে ইনফিনিক্স, টেকনো, সিম্ফোনি ও ওয়ালটন  মোবাইল কোম্পানির ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন গুলো সম্পর্কে আলোচনা করব।

1.Samsung a03 -12000 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন

মোবাইলটিতে 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 3 জিবি রেম (Ram).  এই মোবাইলটির দাম 11 হাজার 990 টাকা

Samsung a03 মোবাইলটিতে 6.5 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে।  720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।

মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 48 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 


মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই Samsung a03 মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে ১০-১১ ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

এক্সিনোস ৭৭৮৪ (14nm)
 চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং ইউআই হিসেবে থাকছে Oneui এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 1.6 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Samsung a03 Features:

  •  6.5 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 3 জিবি রেম ও 32 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • এক্সিনোস ৭৭৮৪ (14nm) চিপসেট।
  • পিছনে 48+2 মেগাপিক্সেল দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 5 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

2. Techno spark 8c - ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন

১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২

মোবাইলটিতে 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 3 জিবি রেম (Ram). এ  এই মোবাইলটির দাম 11 হাজার 999 টাকা।

Techno spark 8c মোবাইলটিতে 6.6 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।


মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে QVGA ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে। দশ ওয়ার্ট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা দেয়া হয়েছে‌।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 8-9 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

কোন ধরনের চিপসেটের সাথে মোবাইলটি রয়েছে সেটা জানা যায়নি। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.3 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Techno spark 8c features:

  • 6.6 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 3 জিবি রেম ও 32 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • পিছনে 13+QVGA দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

3.Symphony Z45

Symphony Z45

মোবাইলটিতে একটি ভার্সনে 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 4 জিবি রেম (Ram). 4 জিবি রেম 64 জিবি রম ভার্সনটার দাম 10 হাজার 190 টাকা। 


Symphony Z45 মোবাইলটিতে 6.52 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।

মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুইটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 720 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 8 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 720 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে।


গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 10-11 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

ইউনিসক T610 (12 nm)  চিপসেটের সাথে মোবাইলটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছ অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 1.8 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Symphony Z45 features:

  • 6.52 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 4  জিবি রেম ও 64 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • ইউনিসক T610 (12 nm)  চিপসেট।
  • পিছনে 13+2 দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 8 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

4. Itel vision 3

12000 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2022

মোবাইলটিতে 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অর্থাৎ রম (Rom) ব্যবহার করা হয়েছে। এবং মোবাইলটির রেম হিসেবে রয়েছে 3 জিবি রেম (Ram). 3 জিবি রেম 64 জিবি রম ভার্সনটার দাম 10 হাজার 490 টাকা

Itel vision 3 মোবাইলটিতে 6.6 ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি টাচ স্ক্রিন টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস রেজুলেশন রয়েছে ডিসপ্লেতে। মোবাইলটিতে ডিসপ্লে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য নেই কোনো সুবিধা।


মোবাইলের পিছনের ছবি তোলার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দুটি ক্যামেরা। মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে 8 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সাথে থাকছে 0.3 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা‌। পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত। 

মোবাইলটির সামনের ক্যামেরা হিসেবে শুধুমাত্র একটি 5 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহৃত হয়েছে। সামনের ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ রেজুলেশন পাওয়া যাবে 1080 পিক্সেল পর্যন্ত।

এই মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে রয়েছে 5000 এমএএইচ non-removable (রিমুভ করা যাবে না) ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে। 18 ওয়ার্ট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা দেয়া হয়েছে‌।

গেমিং ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারে মোবাইলটিতে ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে 8-10 ঘন্টা‌। মোবাইলটির ব্যাটারি চার্জিং সুবিধা দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছে দশ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ‌

কোন ধরনের চিপসেটের সাথে মোবাইলটি রয়েছে সেটা জানা যায়নি। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড 11 এবং সাথে থাকছে অক্টাকোর 2.3 গিগাহার্জ প্রসেসর।

সিকিউরিটি সুবিধা দেওয়ার জন্য মোবাইলটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং ফেস আনলকের মত সুবিধা।

Itel vision 3 features:

  • 6.35 ইঞ্চি 720 x 1600 পিক্সেলের এইচডি প্লাস ডিসপ্লে।
  • 4 জিবি রেম ও 64 জিবি রম।
  • 5000 এমএএইচ লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি।
  • পিছনে 8+0.3 দুইটি ক্যামেরা এবং সামনে 5 মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা।

শেষ কথা

যারা 12000 হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন 2022 অপাচ্ছেন আশা করি এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে 12 হাজার টাকার মধ্যে কোন গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এই আর্টিকেলটিতে ব্যবহৃত ফোন গুলোর দাম যেকোনো সময় পরিবর্তন হতে পারে।

উপরে উল্লেখিত কোন গুলোর মধ্যে যারা ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন খোঁজ করছেন তারা টেকনো স্পার্ক 7 ফোনটি কিনতে পারেন।

Please Share this On:

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url